Posts

Showing posts from 2012

অন্দরে ক্ষরণ

অন্দরে ক্ষরণ

এক....
২২০ নম্বর কেবিন। চারপাশ নিঝুম। শুধু এক রুমে সজাগ কয়েকজোড়া চোখ। পিন পতন নীরবতা। কোথাও কেউ নেই। রাতটা আজ বড় নির্জন। চোখের পলক পড়েনা কারও। সবাই দেখছে একটা নিথর নীরব মুখ। ঘুমিয়ে আছে মনে হয়। কিন্তু না, ঘুমিয়ে থাকা মুখটি ঘুমিয়ে নেই। চলে যাচ্ছে অনন্ত গভীরে।
এত তাড়াতাড়ি কেউ অনন্তের পথে যাত্রা করে। কী জানি, জানেনা ওরা । শুধু জানে পাখির মতো চঞ্চল মেয়েটি আর কিছুক্ষন পর আরও অনেকের বুকে গভীর কষ্টের বেদনা জাগিয়ে চলে যাবে অজানার দেশে।
অথচ গতকালও এমন সময় সে জেগেছিল। কী যে হলো!

অজান্তে একঝাক উৎকণ্ঠিত মানুষের ভীড় থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয় সূর্য । হাসপাতালের নির্জন বারান্দায়। চোখের কোনে কী যেন পড়েছে। কটকট করছে। বোঝেনি সে। এতটুকুও বোঝেনি। মৌমিতাকে সে অবহেলা করে দূরে ঠেলে না রাখলেও পারত। মাথাটা ঝিমঝিম করে। অজানা আশংকায় সেই সকাল থেকে যে বুকটায় ঢিপঢিপ শুরু হয়েছে তা আর কমেনি। বরং যত সময় গেছে তত বেড়েছে।

কাল গভীর রাতে আনন্দ তাকে মুঠোফোনে জানিয়েছিল মৌমিতার হঠাৎ অসুস্থতার কথা। অবস্থা খারাপ। আরও অনেক কথাই বলেছিল সে, মাথায় কিছুই ঢোকেনি সূর্যের। শুধু তার মনে পড়েছিল, মৌমিতা তার ওপর অভিমান করে মুঠো…